,

বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, বাঞ্চারামপুরে যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

একুশে আলো অনলাইন : বিয়ের প্রলোভনে স্বামী পরিত্যক্ত এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলা যুবলীগ নেতা রিপন সরকারকে (৩৩) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার গভীর রাতে বাঞ্ছারামপুর থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে।
রিপন সরকার বাঞ্ছারামপুর উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং মৃত ফজলুল হকের ছেলে।

বাঞ্চারামপুর থানায় দায়ের করা অভিযোগে জানা জানা যায়, ২০১৭ সালে একটি পণ্য মেলায় স্বামী পরিত্যক্ত ওই নারীর সঙ্গে রিপনের পরিচয় হয়। স্বামীর সঙ্গে ডির্ভোসের পর ওই নারী কুমিল্লার হোমনা আর্দশ পাড়ায় একটি বাড়ীতে বাসা ভাড়া থেকে থান কাপড়ের ব্যবসা করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলেন। রিপন নিজেকে অবিবাহিত পরিচয় দিয়ে ওই নারীর সঙ্গে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে তোলে। এরপর অনেকদিন তারা স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে একত্রে বসবাস করে ও শারীরিক সম্পর্ক হয়। একসময় ওই নারী জানতে পারেন- রিপন বিবাহিত এবং তার স্ত্রী সন্তান রয়েছে। তখনই নারী তাকে বিয়ে করার কথা বলেন। রিপন বিয়ে করতে রাজী না হয়ে তাদের গোপন ছবি বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। এতে ওই নারী গত ৭ সেপ্টেম্বর বিজ্ঞ আদালতে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে গত ২১ সেপ্টেম্বর কুমিল্লার হোমনা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলাটি এফআইআরভুক্ত করা হয়।

এই বিষয়ে বাঞ্ছারামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ সালাউদ্দিন আহমেদ বলেন, আমরা একটি মামলার আসামী হওয়ায় রিপনকে গ্রেফতার করে হোমনা থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করেছি। তবে তার বিরুদ্ধে কি মামলা ছিল, তা জানি না।

তবে কুমিল্লার হোমনা থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কায়েস আকন্দ জানান, একটি ধর্ষণ মামলায় রিমনকে বাঞ্ছারামপুর পুলিশের সহায়তায় গ্রেফতার করা হয়েছে।

     এ ক্যটাগরীর আরো সংবাদ