,

শিরোনাম :
সরাইলে বিদ্যুতের দাবিতে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ সরাইলে স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত কসবায় যুবদলের আহবায়ক কমিটি বাতিলে ৭দিনের আল্টিমেটাম পদবঞ্চিতদের মেঘনার ভাঙ্গনে পাল্টে যাচ্ছে নবীনগরের মানচিত্র সরাইলে সালিশের রায় উপেক্ষো করে বাড়ি কিনে দখলের চেষ্টায় এলাকায় উত্তেজনা কসবায় সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি যুবলীগ নেতার, প্রতিবাদে সাংবাদিকদের মানববন্ধন বিজয়নগরে চুরি করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু সরাইলে ২ গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত ১০ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্নকরণ অভিযানে বাধা, প্রকৌশলীর উপর হামলার চেষ্টা পরীমণিকে দফায় দফায় রিমান্ড : ক্ষমা চাইলেন ২ বিচারক

সরাইলে মিছিল, সমাবেশ ও সংঘর্ষের মধ্য দিয়ে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

সরাইল সংবাদদাতা : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে মিছিল, সমাবেশ ও সংঘর্ষের মধ্য দিয়ে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন উপলক্ষে বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা যুবলীগের সম্ভাব্য সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীদের নেতৃত্বে পৃথক পৃথক মিছিল উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

সকাল ১১টায় উপজেলা যুবলীগের বিভিন্ন নেতা-কর্মীদের একটি সমন্বিত মিছিল সরাইল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব রফিক উদ্দিন ঠাকুরের নেতৃত্বে উপজেলার বড্ডাপাড়া গরু বাজার থেকে শুরু হয়ে উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে সমাবেশে মিলিত হয়।

সরাইল উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহবায়ক হাজী মাহফুজ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব রফিক উদ্দিন ঠাকুর।

এসময় উপজেলা যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী পায়েল হোসেন মৃধা, রনি রহমান, মো: এমরান হোসেন, জাকির হোসেন ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হাফেজুল আসাদ সিজারসহ উপজেলা যুবলীগের অন্য নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে সমাবেশ চলাকালে দুপুর ১২টার দিকে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী দুই গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে সরাইল গার্লস স্কুল সড়কে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। পুলিশ সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণের চেষ্টাকালে উত্তেজিত একপক্ষের নেতা-কর্মীরা পুলিশের ওপর চড়াও হয়ে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এসময় পুলিশের কয়েকজন সদস্য স্থানীয় রামধনু বিউটি পার্লারে আশ্রয় নেয়। পরে অতিরিক্ত পুলিশ এসে উত্তেজিত নেতা-কর্মীদের ধাওয়া করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। সংঘর্ষে সুমন নামে পুলিশের এক সদস্যসহ বেশ কয়েকজন নেতা-কর্মী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

     এ ক্যটাগরীর আরো সংবাদ