,

শিরোনাম :
আশুগঞ্জে সুলভ মূল্যে দুধ, ডিম ও মাংস বিক্রি করছে প্রাণিসম্পদ দপ্তর হেফাজতের উপর ভর করে হামলা করেছে বিএনপি-জামাত ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের মানববন্ধন, হেফাজতের সকল সংবাদ বর্জনের ঘোষণা  আশুগঞ্জে হরতালে সহিংসতায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করলেন শিউলি আজাদ এমপি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হরতাল : সংঘর্ষ, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ, নিহত আরো ৪ স্বেচ্ছায় রক্তদানে সকলকে উৎসাহী করে তুলতে হবে : অরবিন্দ বিশ্বাস চট্টগ্রাম বিভাগীয় জয়িতা নির্বাচিত হওয়ায় নিশাত সুলতানাকে সংবর্ধনা দিল ‘আশার আলো’ আশুগঞ্জে ১শ ১০ পাউন্ডের বিশাল কেক কেটে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী পালন মেঘনা নদী দখল করে এপিসিএল এর বালু ভরাটের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন সায়েদুল হক মাস্টারের ইন্তেকাল

আইনমন্ত্রীর পিএকে ঘুষ অফার, আ.লীগ নেতা আটক

স্টাফ রিপোর্টার : সরকারি চাকুরির পাইয়ে দেয়ার জন্য আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের ব্যক্তিগত সহকারী (পিএ) শফিকুল ইসলাম সোহাগকে ‘ঘুষ অফার করে’ আটক হয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মেহারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আমির হামজা। গতকাল শুক্রবার (১ জানুয়ারী) রাতে ঢাকার গুলশানস্থ আইনমন্ত্রীর ব্যক্তিগত কার্যালয় থেকে তাঁকে আটক করে পুলিশ।
আইনমন্ত্রীর পিএ শফিকুল ইসলাম সোহাগ জানান, সম্প্রতি কিশোরগঞ্জ আদালতে সরকারি চাকুরীর একটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়। ওই চাকুরীর জন্য মন্ত্রী মহোদয়ের নির্বাচনী এলাকা কসবা-আখাউড়া উপজেলার অনেকে আবেদন করেছেন। আখাউড়ার ধরখার ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি জিল্লুর রহমানের ছেলে হাসিবুল হাসান ওই চাকুরীর জন্য আবেদন করেন। তাঁর চাকরি পাইয়ে দেয়ার জন্য গতকাল রাতে আমাদের অফিসে আসেন আমির হামজা।
তিনি আরও বলেন, কসবা উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা হয়ে আখাউড়া উপজেলার চাকুরী প্রার্থীর জন্য আসায় আমার তাঁকে সন্দেহ হয়। মন্ত্রী মহোদয়ের মাধ্যমে চাকুরী পাইয়ে দিলে আমাকে খুশি করবেন বলে জানান আমির হামজা। এক পর্যায়ে আমাকে দুই লাখ টাকা অফার করেন তিনি। বিষয়টি তাৎক্ষণিক মন্ত্রী মহোদয় ও কসবা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুল কাউসার ভূঁইয়া জীবনকে জানাই আমি। পরবর্তীতে মন্ত্রী মহোদয়ের নির্দেশে আমির হামজাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।
কসবা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদুল কাউসার ভূঁইয়া জীবন জানান, ‘মন্ত্রী মহোদয় দুই হাজার মানুষকে চাকরি দিয়েছেন। কারো কাছ থেকেই টাকা নেননি। তিনি (আমির হামজা) যে ঘটনা ঘটিয়েছেন, সেটি খুবই দুঃখজনক। তাঁর বিরুদ্ধে আমরা সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেব’।

     এ ক্যটাগরীর আরো সংবাদ