,

শিরোনাম :
আশুগঞ্জে সুলভ মূল্যে দুধ, ডিম ও মাংস বিক্রি করছে প্রাণিসম্পদ দপ্তর হেফাজতের উপর ভর করে হামলা করেছে বিএনপি-জামাত ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের মানববন্ধন, হেফাজতের সকল সংবাদ বর্জনের ঘোষণা  আশুগঞ্জে হরতালে সহিংসতায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করলেন শিউলি আজাদ এমপি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হরতাল : সংঘর্ষ, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ, নিহত আরো ৪ স্বেচ্ছায় রক্তদানে সকলকে উৎসাহী করে তুলতে হবে : অরবিন্দ বিশ্বাস চট্টগ্রাম বিভাগীয় জয়িতা নির্বাচিত হওয়ায় নিশাত সুলতানাকে সংবর্ধনা দিল ‘আশার আলো’ আশুগঞ্জে ১শ ১০ পাউন্ডের বিশাল কেক কেটে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী পালন মেঘনা নদী দখল করে এপিসিএল এর বালু ভরাটের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন সায়েদুল হক মাস্টারের ইন্তেকাল

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৌকার প্রচারণায় ককটেল বিস্ফোরণ, ৯৬জনের নামে দুই মামলা

স্টাফ রিপোর্টার : ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী নায়ার কবিরের নির্বাচনী প্রচারণা ক্যাম্প ও মিছিলে ককটেল হামলার ঘটনায় দুটি মামলা করা হয়েছে। দুই মামলায় দেড় শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।
শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে সদর মডেল থানায় বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে এ দুটি মামলা করা হয়। দুই মামলায় বিএনপি ও আওয়ামীলীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকসহ ৯৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৭০ জনকে আসামি করা হয়েছে।
মামলা দুটির একটির বাদী জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাসুম বিল্লাহ ও অপরটির বাদী জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি রুমেল আল ফয়সল।
শুক্রবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় বিস্ফোরণ আইনে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি রুমেল আল ফয়সল ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাসুম বিল্লাহ বাদি হয়ে পৃথক এ দুটি মামলা দায়ের করেন। দুটি মামলায় বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, ছাত্রদল, ছাত্রলীগ ও কৃষকলীগের ৯৬জন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাত ৭০ জনকে আসামী করা হয়েছে। মামলায় অভিযুক্ত ছাত্রলীগ ও কৃষকদলের নেতাকর্মীরা আওয়ামীলীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীও সমর্থক বলে জানা যায়।
এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুর রহিম বলেন, দুটি মামলাই নথিভুক্ত করা হয়েছে। তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাসুম বিল্লাহর দায়ের করা মামলার এজহারে বলা হয়, গত বৃহস্পতিবার রাতে বাদীর নেতৃত্বে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর প্রচারণাকালে একদল সন্ত্রাসী আকস্মিক ভাবে ১০/১৫ টি হাতবোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। এসময় মেড্ডা পৌর ডিগ্রি কলেজের সামনে দিয়ে বাদি সহ অন্যরা পালিয়ে আসলে মোবাইল প্রতীকের শ্লোগান দিয়ে আরও ২০/২৫টি বিস্ফোরণ করে।
এই ঘটনায় সাব্বির মিয়া নামের একজন আহত হয়। বিস্ফোরণ আইনে দায়ের করা মামলায় পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি পারভেজ, ইশতিয়াক আহমেদ ঈশান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক লিমন আল স্বাধীন, জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য আলী আজ্জম, নিয়ামুল হক ও জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক সমীর চক্রবর্তী সহ ৪০জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ১৫/২০জনকে আসামী করা হয়।
জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি রুমেল আল ফয়সলের দায়ের করা মামলার এজহারে উল্লেখ করা হয়, গত ১৮ ফেব্রুয়ারী বেলা ৩টার দিকে পৌর এলাকার দক্ষিণ মৌড়াইলে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর অস্থায়ী নির্বাচনী অফিসে হামলা করে ২৫/৩০হাত বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। এছাড়াও ৭/৮ রাউন্ড গুলি ছুুড়ে ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টি করে। আসামীরা নৌকা প্রতীকের কার্যালয়ে কুপিয়ে দুই লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন করে বলে মামলার এজহারে উল্লেখ করা হয়। বিস্ফোরণ আইনে মামলা দায়ের করা এ মামলায় জেলা কৃষক লীগের বহিস্কৃত সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন দুলাল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন দিলীপ, জেলা যুবদলের সভাপতি শামীম মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মাহমুদ, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি শেখ মোহাম্মদ হাফিজ উল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক ফুুজায়েল চৌধুরীসহ ৫৬জনের নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাত ৪০/৫০জনকে আসামী করা হয়েছে।

     এ ক্যটাগরীর আরো সংবাদ