,

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদক মামলায় ১ জনের যাবজ্জীবন

কোর্ট রিপোর্টার : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার এক মাদক মামলায় মহেব আলী (৪৮) নামের এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রদান করেছে আদালত। একই সাথে ১০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। দন্ডপ্রাপ্ত মহেব আলী উপজেলার সিঙ্গারবিল ইউনিয়নের নলগড়িয়া গ্রামের মৃত মর্তুজ আলীর ছেলে। একই মামলা অভিযুক্ত আরও ৮জনের বিরুদ্ধে অপরাধ সন্দেহাতীত ভাবে প্রমাণিত না হওয়ায় বেকসুর খালাস প্রদান করে আদালত।
বেকসুর খালাশপ্রাপ্তরা হলেন, নলগড়িয়ার সামসু মিয়ার ছেলে দ্বীন ইসলাম ও ফারুক, একই এলাকার রূপ মিয়ার ছেলে শরীফ, জানু মেকারের ছেলে মানিক মিয়া, শের আলীর ছেলে বোরহান উদ্দিন, মেরাশানীর মৃত তাহের মিয়ার ছেলে জুবায়ের মিয়া, গিয়াস মিয়ার ছেলে মানিক মিয়া ও জজ মিয়ার ছেলে সাচ্চু মিয়া।

সোমবার বেলা ১২টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জজ আদালতের অতিরিক্ত দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক সাবেরা সুলতানা খানম এই রায় প্রদান করেন।
আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ৩জুন রাত সোয়া ১২টার দিকে বিজয়নগর থানা পুলিশের একটি দল উপজেলার কাঞ্চনপুরের একটি কবর স্থানে মাদক ব্যবসায়ীরা ফেন্সিডিল মজুদ করছেন। এই খবরের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ ৯৭৫বোতল ফেন্সিডিল সহ ৯ জনকে আটক করে। পরে বিজয়নগর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করে পুলিশ। এই মামলায় সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে আদালতের রায়ে একজনকে যাবজ্জীবন ও ৮জনকে বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়।
মামলার রায়ে আসামী পক্ষের আইনজীবী উম্মে শবনম মুস্তারী মৌসুমী বলেন, মামলায় এই রায়ে আমরা ন্যায় বিচার পায়নি, আমরা সংক্ষুব্ধ। বিজ্ঞ আদালত জেরা সময় কোন কিছু নথিভুক্ত করেননি। আমরা এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করবো।
সরকার পক্ষের আইনজীবী এপিপি শরিফুল ইসলাম বলেন, আদালত যৌক্তিক ভাবে এই মামলাটির রায় দিয়েছেন। আমরা এই রায়ে সন্তুষ্ট।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদক মামলায় ১ জনের যাবজ্জীবন
কোর্ট রিপোর্টার : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার এক মাদক মামলায় মহেব আলী (৪৮) নামের এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রদান করেছে আদালত। একই সাথে ১০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। দন্ডপ্রাপ্ত মহেব আলী উপজেলার সিঙ্গারবিল ইউনিয়নের নলগড়িয়া গ্রামের মৃত মর্তুজ আলীর ছেলে। একই মামলা অভিযুক্ত আরও ৮জনের বিরুদ্ধে অপরাধ সন্দেহাতীত ভাবে প্রমাণিত না হওয়ায় বেকসুর খালাস প্রদান করে আদালত।
বেকসুর খালাশপ্রাপ্তরা হলেন, নলগড়িয়ার সামসু মিয়ার ছেলে দ্বীন ইসলাম ও ফারুক, একই এলাকার রূপ মিয়ার ছেলে শরীফ, জানু মেকারের ছেলে মানিক মিয়া, শের আলীর ছেলে বোরহান উদ্দিন, মেরাশানীর মৃত তাহের মিয়ার ছেলে জুবায়ের মিয়া, গিয়াস মিয়ার ছেলে মানিক মিয়া ও জজ মিয়ার ছেলে সাচ্চু মিয়া।

সোমবার বেলা ১২টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জজ আদালতের অতিরিক্ত দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক সাবেরা সুলতানা খানম এই রায় প্রদান করেন।
আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ৩জুন রাত সোয়া ১২টার দিকে বিজয়নগর থানা পুলিশের একটি দল উপজেলার কাঞ্চনপুরের একটি কবর স্থানে মাদক ব্যবসায়ীরা ফেন্সিডিল মজুদ করছেন। এই খবরের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ ৯৭৫বোতল ফেন্সিডিল সহ ৯ জনকে আটক করে। পরে বিজয়নগর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করে পুলিশ। এই মামলায় সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে আদালতের রায়ে একজনকে যাবজ্জীবন ও ৮জনকে বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়।
মামলার রায়ে আসামী পক্ষের আইনজীবী উম্মে শবনম মুস্তারী মৌসুমী বলেন, মামলায় এই রায়ে আমরা ন্যায় বিচার পায়নি, আমরা সংক্ষুব্ধ। বিজ্ঞ আদালত জেরা সময় কোন কিছু নথিভুক্ত করেননি। আমরা এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করবো।
সরকার পক্ষের আইনজীবী এপিপি শরিফুল ইসলাম বলেন, আদালত যৌক্তিক ভাবে এই মামলাটির রায় দিয়েছেন। আমরা এই রায়ে সন্তুষ্ট।

     এ ক্যটাগরীর আরো সংবাদ