,

শিরোনাম :
সরাইলে বিদ্যুতের দাবিতে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ সরাইলে স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত কসবায় যুবদলের আহবায়ক কমিটি বাতিলে ৭দিনের আল্টিমেটাম পদবঞ্চিতদের মেঘনার ভাঙ্গনে পাল্টে যাচ্ছে নবীনগরের মানচিত্র সরাইলে সালিশের রায় উপেক্ষো করে বাড়ি কিনে দখলের চেষ্টায় এলাকায় উত্তেজনা কসবায় সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি যুবলীগ নেতার, প্রতিবাদে সাংবাদিকদের মানববন্ধন বিজয়নগরে চুরি করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু সরাইলে ২ গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত ১০ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্নকরণ অভিযানে বাধা, প্রকৌশলীর উপর হামলার চেষ্টা পরীমণিকে দফায় দফায় রিমান্ড : ক্ষমা চাইলেন ২ বিচারক

২২ বছরেও মানুষের পদধুলি ভাগ্যে জুটেনি, অবশেষে সেতুটির অপমৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার : দীর্ঘ ২২ বছরেও কোন মানুষের পদধুলি বুকে ধারন করা ভাগ্যে জুটেনি। অবশেষে অপমৃত্যু হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ার একটি ভাগ্যহীন সেতুর।
উপজেলার ধরখার ইউনিয়নের বনগজ ও কৃষ্ণনগর বিলে বিগত ১৯৯৯ সালে প্রায় অর্ধকোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছিল সেতুটি। কিন্তু ২২ বছরেও সংযোগ সড়ক না হওয়ায় এটি কোনোই কাজে আসছিল না। নির্মানের পর একদিকের জন্যও সেতুটি ব্যবহার করতে পারেননি স্থানীয়রা।
গত শুক্রবার ইঞ্জিনচালিত নৌকার ধাক্কায় সেতুটি ভেঙে পড়লে এলাকায় আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠে। তবে টনক নড়েনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।
শনিবার এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত স্থানীয় সরকার প্রকৌশ অধিদপ্তরের কোন কার্যকর পদক্ষেপ পরিলক্ষিত হয়নি।
স্থানীয়রা জানান, আখাউড়া উপজেলায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীনে বনগজ ও কৃষ্ণনগর গ্রামের মধ্যবর্তী নয়াখালের ওপর নির্মিত সেতুটি সমতল থেকে অন্তত ১৫ ফুট উঁচু। কিন্তু সংযোগ সড়ক না থাকায় নির্মানের ২২ বছরেও সেতুটি ব্যবহার করা সম্ভব হয়নি। শুক্রবার সকালে ইটবোঝাই একটি নৌকা বিল পারাপারের সময় সেতুর মাঝখানের পিলারে ধাক্কা দেয়। এতে সেতুর একাংশ ভেঙে যায়। সেতুর ভাঙা অংশ নৌকার ওপর পড়ার কারণে নৌকাটিও ডুবে যায়। তবে নৌকার মাঝি ও নৌকায় থাকা অন্যরা অক্ষত রয়েছেন।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আখাউড়া উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ বলেন, সেতু ভেঙে পড়ার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে লোক পাঠানো হয়েছিল। পরিদর্শনের প্রতিবেদন পেয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

     এ ক্যটাগরীর আরো সংবাদ