,

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের মানববন্ধন, হেফাজতের সকল সংবাদ বর্জনের ঘোষণা 

স্টাফ রিপোর্টার ; হেফাজতে ইসলামের ডাকা সারাদেশে হরতালে পিকেটিংএর সময় পরিকল্পিতভাবে জেলায় কর্মরত সাংবাদিক ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবে হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় বক্তারা হেফাজতে ইসলামের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সকল সংবাদ বর্জনের ঘোষণা করেন।
মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়। মিছিলটি জেলা শহরের বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে আবারো প্রেসক্লাবের সামনে এসে শেষ হয়। পরে সেখনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ সভাপতি পীযূষ কান্তি আচার্যের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জাবেদ রহিম বিজন, টেলিভিশন জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মনজুরুল আলম, প্রেস ক্লাবের সহসভাপতি ইব্রাহীম খান সাদাত, সাবেক সভাপতি সৈয়দ মিজানুর রেজা, খ. আ. ম. রশীদুল ইসলাম ও মোহাম্মদ আরজু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আ. ফ. ম. কাউসার এমরান ও দীপক চৌধুরী বাপ্পি,  জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আবদুন নূর, কবি জয়দুল হোসেন, এমদাদুল হক, সৈয়দ মো. আকরাম, নিয়াজ মুহাম্মদ খান বিটু, প্রেস ক্লাবের কোষাধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম শাহজাদা, তথ্যপ্রযুক্তি সম্পাদক মজিবুর রহমান খান, সাবেক সহসভাপতি মফিজুর রহমান লিমন, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাহারুল ইসলাম মোল্লা, টেলিভিশন জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জহির রায়হান, সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্ম আবিশ্বজিৎ পাল, নবীনগর প্রেস ক্লাবের সভাপতি জালাল উদ্দিন মনির, আশুগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন, কসবা উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি খ. ম. হারুনুর রশীদ ঢালী, সরাইল প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব খান বাবুল ও এশিয়ান টিভির স্টাফ রিপোর্টার হাবিবুর রহমান পারভেজ প্রমুখ।
এসময় বক্তারা প্রেসক্লাবের সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন জামিসহ জেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের উপর পরিকল্পিত হামলাকারীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা ও কঠোর শাস্তির দাবি করেন। পাশাপাশি প্রেসক্লাবে হামলাকারীদের বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানান। এছাড়াও হেফাজতের জেলার সকল সংবাদ বর্জনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

     এ ক্যটাগরীর আরো সংবাদ